1. admin@dainikprothomprohor.com : admin : News Desk
ফিলিপাইনের দিকে ধেয়ে আসছে সুপার টাইফুন ‘মাওয়ার’ - দৈনিক প্রথম প্রহর
মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ১২:১৪ অপরাহ্ন

ফিলিপাইনের দিকে ধেয়ে আসছে সুপার টাইফুন ‘মাওয়ার’

  • প্রকাশিত: শনিবার, ২৭ মে, ২০২৩

দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার দেশ ফিলিপাইনের দিকে প্রবল শক্তি নিয়ে ধেয়ে আসছে সুপার টাইফুন মাওয়ার।
যুক্তরাষ্ট্রের জয়েন্ট টাইফুন ওয়ার্নিং সেন্টার জানিয়েছে, ২০২৩ সালে যতগুলো টাইফুন সংঘটিত হয়েছে, এগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি শক্তিশালী মাওয়ার। এটি শনিবার ক্যাটাগরি-৫ টাইফুনে রূপ নেয়। প্রশান্তীয় অঞ্চলে প্রবেশের পর ফিলিপাইন টাইফুনটির নাম দিয়েছে ‘বেটি’।

বর্তমানে টাইফুনটি ২৭০ কিলোমিটার গতির শক্তি সঞ্চার করছে। শনিবার (২৭ মে) সর্বশেষ আপডেটে ফিলিপাইনের আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, টাইফুনটি শক্তি ধরে রেখেছে এবং এটি উত্তরদিকে ক্রম অগ্রসর হচ্ছে।

দেশটির অধিকাংশ অঞ্চলে বজ্রবৃষ্টি এবং ভূমি ধসের সতর্কতা জারি করা হয়েছে। টাইফুনটিকে ঘিরে নেয়া হয়েছে বাড়তি সতর্কতা। এছাড়া ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে দেশটিতে আশ্রয়কেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে।

আরো পড়ুন>> ক্যামেরুনে বাস-ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ১৬

জাপানের আবহাওয়া অ্যাসোসিয়েশন মাওয়ারকে বিধ্বংসী টাইফুন হিসেবে অভিহিত করে জানিয়েছে, টাইফুনটির গতিবেগ ঘণ্টায় ১৯৪ কিলোমিটার। বিশেষজ্ঞরা জানান, শুধু ২০২৩ সাল নয়, ২০২২ সালেও যত টাইফুন হয়েছে সেগুলোর চেয়েও অধিক শক্তিশালী মাওয়ার।

এদিকে টাইফুনটি শক্তি সঞ্চার করার আগে কিছুটা দুর্বল হয়ে বুধবার গুয়ামের পাশ দিয়ে আসে। এটির প্রভাবে গুয়ামে প্রচণ্ড বৃষ্টিপাতের সঙ্গে গাড়ি উড়ে যাওয়া ও গাছপালা উপড়ে যাওয়ার মতো ঘটনা ঘটে।

টাইফুনটির প্রভাবে গুয়াম দ্বীপের ৫২ হাজার বাসিন্দার প্রায় সবাই বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছেন। যদিও এটির আঘাতে এখনো কোনো প্রাণহানির খবর পাওয়া যায়নি। তবে বিভিন্ন অবকাঠামোর ক্ষতি হওয়ার খবর পাওয়া যায়।

উল্লেখ্য, ২০২১ সালে ফিলিপাইনে আঘাত হানা টাইফুন ‘রাইয়ে’ প্রায় ৪০০ মানুষ মারা যায়। প্রশান্ত মহাসাগরের এ দেশটি প্রায়ই টাইফুনের কবলে পড়ে। এখন নতুন করে আরেকটি বড় প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের শঙ্কায় রয়েছে ফিলিপাইন। সূত্র: দ্য জাপান টাইমস

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
কপিরাইট © ২০২২ দৈনিক প্রথম প্রহর. কম
ডিজাইন ও ডেভেলপ : ডিজিটাল এয়ার