1. admin@dainikprothomprohor.com : admin : News Desk
জমি কিনে এখন বাড়িছাড়া সরকারি কর্মচারি দম্পতি - দৈনিক প্রথম প্রহর
শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০৯:১৭ পূর্বাহ্ন

জমি কিনে এখন বাড়িছাড়া সরকারি কর্মচারি দম্পতি

  • প্রকাশিত: শনিবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০২৩

বরগুনা প্রতিনিধি,
বরগুনার বেতাগী উপজেলার হোসনাবাদ ইউনিয়নের বাসিন্দা জলিলুর রহমান ও তাঁর স্ত্রী ইশরাত জাহান। উভয়ে শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের চতুর্থশ্রেণির কর্মচারি। চাকরির কষ্টার্জিত টাকা দিয়ে গ্রামের বাড়িতে এক টুকরো জমি কিনেছেন ঘর তোলার জন্য। কিন্ত সে জমি জবর দখলে নিয়েছে একই বাড়ির আউয়াল ও সোহাগ নামের দুই ভাই। সম্প্রতি রাতের আঁধারে জলিলুরের কেনা সেই জমি জবরদখল করে ঘর তুলেছে প্রতিবেশী দুই ভাই।

শুধু জবরদখল করে ক্ষ্যান্ত হয়নি, জমির আশপাশে গেলেও খুন খারাবির হুমকি দিয়েছে ওই দুই ভাই। এ অবস্থায় এখন ভয়ে বাড়ি যাওয়া বন্ধ করেছেন জলিুলর। তবে জমির বিরোধ নিয়ে সমঝোতা বৈঠকে বসতে রাজী দখলকারীরা।

জমির কাগজপত্র ঘেঁটে দেখা যায়, ২০২০ সালের সেপ্টেম্বর মাসে হোসনাবাদ মৌজার এসএ ৪৪১ নং খতিয়ানের ৪০, ৯৩ ও ১০০৪/১৭৩৯ দাগের ১৭ শতাংশ জমি রেকর্ডিয় মালিক মোঃ সোহরাব হোসেন, শাহজাহান, মোঃ লুৎফর রহমানের কাছ থেকে জলিলুর রহমানের ছেলে আনাস রাব্বির নামে ক্রয় করেণ। কিন্ত জমি কেনার পর থেকেই ভোগদখলে বাঁধা দেয় মৃত হারুনি হাওলাদাওে দুই ছেলে প্রতিবেশী আউয়াল ও সোহাগ। দীর্ঘ তিনবছর ধরে ওই জমি ভোগদখলে পাঁয়তারা করে আসছে ওই দুই ভাই। এই নিয়ে উভয়পক্ষের মধ্যে একাধিক মামলা চলমান। গত শুক্রবার গভীর রাতে সোহাগ ও আউয়াল ওই জমিতে ঘর তুলে দখলে নেয়। খবর পেয়ে জলিলুর রহমানও তাঁর স্ত্রী ইশরাত জাহান ঘটনাস্থলে আসলে সোহাগ, আউয়াল ও তাদের সহযোগীরা হামলার উদ্দেশ্যে তেড়ে আসে। এসময় প্রানভয়ে জলিলুর ও তার স্ত্রী কোনোমতে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। জলিলুর রহমান বলেন, আমি জমি কিনে এখন বাড়িতে যেতে পারছিনা। সোহাগ ও আউয়াল আমাদেরকে খুন করে লাশ নদীতে ভাসিয়ে দেয়ার হুমকি দিয়েছে। জলিলুলের স্ত্রী ইশরাত জাহান বলেন, আমি প্রানভয়ে আমরা পালিয়ে এসেছি। আমাদেরকে তারা হুমকি দিয়েছে। আমি বেতাগী থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছি। সারাজীবনের সঞ্চয় থেকে জমি কিনে এখন আমার বাড়িছাড়া। আমি আমার জমি দখলমুক্ত করতে আইনী সহায়তা চাই।

রাতের আঁধারে জমি জবরদখল করে ঘর তোলা প্রসঙ্গে জানতে মোঃ সোহাগ মিয়া হুমকি দেয়ার বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, ঘর তোলা বেআইনী হয়েছে এ নিয়ে সালিশ বৈঠক হলে আমরা বসতে চাই।

বেতাগী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আনোয়ার হোসেন বলেন, জলিলুর রহমানের কেনা জমিতে সোহাগ ও আউয়াল বেআইনীভাবে ঘর তুলেছে এমন অভিযোগে সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। পুলিশ সরেজমিন তদন্ত করেছে। অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা আইনহত ব্যবস্থা গ্রহন করবো।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
কপিরাইট © ২০২২ দৈনিক প্রথম প্রহর. কম
ডিজাইন ও ডেভেলপ : ডিজিটাল এয়ার